নিউজ ডেস্ক- মাত্র সাত বছর বয়েসে মারা গেল টারদার সস।তার মৃত্যুতে শোকাহত গোটা দুনিয়া। টারদার সস বা গ্রাম্পি ক্যাট এর সেই চেনা মুখ আর নতুন করে দেখা যাবে না। বর্তমানে ফেসবুকে ৮.৫ মিলিয়ন ফলোয়ার রয়েছে তার। ইনস্টাগ্রামে প্রায় আড়াই মিলিয়ন। আর টুইটারে প্রায় দেড় মিলিয়ন লোকজন ফলো  করে তাকে। গ্রাম্পি ক্যাট বা রাগী বেড়ালের বাড়ি আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলস। জানা গিয়েছে,মুত্রের সঙ্ক্রমণে মাত্র ৭ বছর বয়সেই মৃত্যু হয়েছে এই ‘গ্রাম্পি ক্যাট’এর। তার মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই সোশ্যাল সাইটে শোকের ঝড়।

যে পরিবারের সঙ্গে থাকত গ্রাম্পি, সেই পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, “অত্যন্ত আদরের, আমাদের পরিবারেরই এক সদস্য ছিল সে।আমাদের সন্তানসম। সম্প্রতি অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরীক্ষানিরীক্ষার পর মূত্রে সংক্রমণ ধরা পড়ে তার। চিকিৎসাও চলছিল গ্রাম্পির। কিন্তু, অনেক চেষ্টা করেও বাঁচানো গেল না গ্রাম্পিকে।” মিক্সড-ব্রিড এই বেড়ালেরর আসল নাম টারদার সস। প্রথম সোশ্যাল সাইটে তার ছবি প্রকাশ্যে আসে ২০১২ সালে।তখন সে একদম ছোট্ট। প্রথম ছবি প্রকাশ্যে আসার পরেই সকলের নজর কাড়ে গ্রাম্পি। এরপর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ্যে আসে তার একাধিক ছবি। ধীরে ধীরে নেট দুনিয়ার সেনসেশন হয়ে যায় সে। ২০১৪ সালে তাকে নিয়ে তৈরি হয় সিনেমা, “Grumpy Cat’s Worst Christmas Ever”। গ্রাম্পির ছবি নিয়ে তৈরি হয়েছে প্রচুর অ্যালবাম। তৈরি হয়েছে খেলনা। জামা,টিশার্টে তার ছবি নজর কেড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here