স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা – মালদায় তৃণমূলের ভরাডুবি হওয়ায় এই জেলায় দুজন অবজারভাররাখার সিদ্ধান্ত নিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুভেন্দু অধিকারী এই জেলার অবজারভারের দায়িত্বে ছিলেন। পরে জেলার ফলাফল এবং কিছু তৃণমূল নেতার আচরণে প্রশ্ন চিহ্ন ওঠায় তিনি এই পদ থেকে অব্যাহতি চেয়েছিলেন। তাই এই জেলার জন্যে বিশেষভাবে থাকছেন দুজন অবজারভার। অবজারভার হচ্ছেন বিধায়ক সাধন পান্ডে এবং গুলাম রব্বানী।
অন্যদিকে,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে গুরুত্বপূর্ণ কোনও দায়িত্বে রাখা হল না। বরং শুভেন্দু অধিকারীকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হল। এবং এই প্রথম বার সামনে এনে বিশেষ পদ দেওয়া হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এভাবেই শুক্রবার কোর কমিটির বৈঠকে সাংগঠনিক রদবদল করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
গঠন করা হল জয় হিন্দ বাহিনী এবং বঙ্গ জননী। জয় হিন্দ বাহিনীর সভাপতি হলেন কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়। চেয়ারম্যান ব্রাত্য বসু। ভাইস চেয়ারম্যান ইন্দ্রনীল সেন। বঙ্গ জননীর দায়িত্বে কাকলী ঘোষ দস্তিদার।
সংখ্যালঘু সেলের দায়িত্বে সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী।
মালদা জেলার জন্যে দুজন অবজারভার।অবজারভার হচ্ছেন বিধায়ক সাধন পান্ডে এবং গুলাম রব্বানী।
তাবে উত্তর থেকে দক্ষিণ বঙ্গের সব জেলাতেই রাখা হবে বিশেষ নজরদারি। যার মূল দায়িত্বে থাকবেন শুভেন্দু অধিকারী।
আগামী ৭ জুন থেকে কর্মী সম্মেলন শুরু করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতি জেলাতেই হবে আলাদা আলাদা বৈঠক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here