নিউজ ডেস্ক- জিডি বিড়লা স্কুলে পাওয়া গেল ছাত্রীর রক্তাক্ত দেহ। ছাত্রীর বাবা কর্মসূত্রে থাকেন ভিন রাজ্যে। রানিকুঠির জিডি বিড়লা স্কুলে শৌচালয়ে উদ্ধার হল দশম শ্রেণির এই ছাত্রীর রক্তাক্ত দেহ। মুখ মোড়া প্লাস্টিকে। হাতে ব্লেডের আঘাত। ছাত্রীর রহস্যমৃত্যুর ঘিরে উঠেছে একাধিক প্রশ্ন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিস। নমুনা সংগ্রহ করেছে ফরেন্সিক।শৌচালয় থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি সুইসাইড নোট। ওই নোটে লেখা রয়েছে, বছর দুয়েক পর ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিকাল ইনস্টিটিউটের প্রবেশিকা পরীক্ষা নিয়ে চাপে ছিল ওই ছাত্রী। ডিসি ট্রাফিক মুরলীধর শর্মা জানান,”অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলেছি। প্রাথমিকভাবে বুঝতে পেরেছে ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিকাল ইনস্টিটিউটের প্রবেশিকা পরীক্ষায় সুযোগ পাওয়া নিয়ে চিন্তিত ছিল ওই ছাত্রী। সুইসাইড নোটে লেখা, ৩ মাস ঘুম ঠিকমতো হয়নি। হাতের শিরায় আত্মঘাতী দাগ রয়েছে। ছোট ছোট ব্লেড উদ্ধার হয়েছে। পাওয়া গিয়েছে পলিথিনও”।
কিন্তু দশম শ্রেণির ছাত্রী শৌচালয়ে গিয়েএভাবে আত্মহত্যা করল, অথচ কেউ বুঝতে পারল না? সুইসাইড নোটটি তার কিনা, সেটা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। সন্দেহ রয়েছে প্লাস্টিক মোড়ানো নিয়ে। নিজেকে প্লাস্টিক মুড়িয়ে ব্লেড দিয়ে শিরা কেটেছে ওই ছাত্রী? উঠছে এমন অনেক প্রশ্ন।
অন্যদিকে, ফরেন্সিক বিভাগের ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহের পাশাপাশি পৌঁছয় হোমিসাইড শাখাও। স্কুলের শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীদেরও চলছে জেরা। ছাত্রীর অভিভাবকদের সঙ্গেও কথা বলেছে পুলিস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here