স্টাফ রিপোর্টার -ইটপাটকেল আর লাঠি নিয়ে জনতার দিকে তেড়ে গেল জনতা। পুলিস-জনতা সংঘর্ষে ফের রণক্ষেত্র ভাটপাড়া। কমব্যাট ফোর্স ও র‍্যাফকে লক্ষ্য করে ছুঁড়ল ইট-পাটকেল। জওয়ানদের দিকে লাঠি-রড নিয়ে তেড়ে গেল জনতা। কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনল পুলিস।
কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়া। বৃহস্পতিবার গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারান দুজন। ওই দুজনের দেহ নিয়ে শুক্রবার মিছিলের পরিকল্পনা ছিল বিজেপির। তার আগেই এলাকায় ঢোকে বারাকপুর কমিশনারেটের একটি দল। পুলিস জানায় বিধায়ক ও সাংসদদের ছাড়া মিছিল করতে হবে। কারণ তাঁরা থাকলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলে আশঙ্কা পুলিসের। এরপরই উত্তেজিত হয়ে পড়ে জনতা।তাদের অভিযোগ আসলে পুলিশকে সামনে রেখে উত্তেজনা ছড়াচ্ছে শাসক দল। ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে সাধারন মানুষের মধ্যে। উত্তেজিত জনতাপুলিসের দিকে তেড়ে যায়। কমব্যাট ফোর্স ও র‍্যাফের জওয়ানদের লক্ষ্য করে ইট-পাটকেট ছুঁড়তে শুরু করে। লাঠি-রড বেরিয়ে আসে অনেকে। পিছু হটে পুলিস। পড়ে যান র‍্যাফের কয়েকজন জওয়ান। ইটের ঘায়ে জখম হয়েছেন অনেকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে পুলিস।
ঘটনাস্থলে ছিলেন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং ও নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং।তারাই ক্ষুব্ধ জনতাকে সামলাতে মাঠে নামেন। বোঝানোর চেষ্টা করেন। তাঁদের অনুরোধেই নিয়ন্ত্রণে আসে জনতা। এরপর শুরু হয় বিজেপির দুই সমর্থকের মৃতদেহ নিয়ে মিছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here