নিউজ ডেস্ক- বন্দি সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিম সম্প্রদায়কে কাজে লাগিয়ে অঙ্গ চাষ করছে চিন।জোর করে হার্ট, ফুসফুস, কিডনি ও ত্বক ছিনিয়ে নিচ্ছে চিন প্রশাসন। সম্প্রতি রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার সংক্রান্ত বৈঠকে বেজিংয়ের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনেছে চায়না ট্রাইবুনাল নামে আন্তর্জাতিক অঙ্গ নিপীড়ন দমন সংগঠন।
মঙ্গলবার ট্রাইবুনালের আইনজীবী হামিদ সাবি রাষ্ট্রপুঞ্জে অভিযোগ করেছেন, সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিম এবং ফালুন গং ধর্মীয় সম্প্রদায়ের থেকে জোর করে হার্ট, ফুসফুস, কিডনি ও ত্বক ছিনিয়ে নিচ্ছে চিন প্রশাসন।
ট্রাইবুনালে প্রকাশিত ভিডিয়োয় সাবি জানিয়েছেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে সমগ্র চিনে ফালুন গং ও উইঘুরদের মতো সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের থেকে উল্লেখযোগ্য হারে বলপূর্বক অঙ্গ আদায় করা হচ্ছে। এই গণনির্যাতনের শিকার হচ্ছেন কয়েক লক্ষ মানুষ।’


এছাড়া, গত জুলাই মাসে প্রকাশিত অন্য আর একটি রিপোর্টে চিন সরকারের দ্বারা ‘যথেষ্ট পরিমাণ’ সংখ্যালঘু বন্দি হত্যার অভিযোগ এনেছিল চায়না ট্রাইবুনাল।


অন্যদিকে, আন্তর্জাতিক স্তরের মানবাধিকার সংগঠনগুলির অভিযোগ সম্পূর্ণ অগ্রাহ্য করেছে চিন। সরকারি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, প্রাণদণ্ডে দণ্ডিত বন্দিদের দেহ থেকে অঙ্গ নেওয়ার প্রথা বন্ধ করা হয়েছে ২০১৫ সাল থেকেই ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here