নিউজ ডেস্ক- অত্যাবশ্যকীয় জিনিসের তালিকায় রাখতে হবে মদ, জানিয়ে দিলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে মঙ্গলবার জানিয়ে দিয়েছেন মধ্যরাত থেকে ২১ দিনের লকডাউনের খবর ৷ এই অবস্থায় কী ভাবে কী পরিষেবা পাওয়া যাবে তা নিয়ে নানা প্রশ্ন নানা ধোঁয়াশা ৷ এই অবস্থায় কেরলে বিক্রি হচ্ছে মদ। পঞ্জাব আর কেরলে সব রকমের পানিয়কে অত্যাবশ্যকীয় জিনিসের তালিকায় রেখেছে। মদ বিক্রি অনুমতিকে সঠিক বলে জানিয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।


কেরলে রাজ্য সরকার অনেকটাই নির্ভর করে মদ বিক্রির উপরে। ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে কেরলে রেকর্ড পরিমাণে মদ বিক্রি হয়। সারা বছরে ১৪,৫০৮ কোটি টাকার মদ বিক্রি হওয়ায় রাজ্য সরকারের রাজস্ব বাবদ আয় হয় ২,৫২১ কোটি টাকা।


কেরলের মুখ্যমন্ত্রী বলছেন , ‘ ‘রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে মদ বিক্রি চালু রাখতে হবে আর মদকে আবশ্যক শ্রেণীতে রাখা হবে।’ বিজয়ন বলেন, ‘মদের দোকান খোলা থাকবে। যখন সরকার মদ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছিল, তখন আমাদের অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল’। সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে বিরোধী নেতা রমেশ চেনিথলা বলেন, সরকার রাজ্যে কোনভাবেই মদের দোকান বন্ধ করবে না, এর জন্যই এরকম অজুহাত দিচ্ছে। মদের দোকান এমন ভাবে চলতে থাকলে আরো সমস্যা সৃষ্টি হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here