নিউজ ডেস্ক- একদিকে করোনা সংক্রমণ অন্যদিকে বন্যা, বিপর্যস্ত অসম,মৃত্যু ২০ জনের, ক্ষতিগ্রস্ত ৯ লক্ষ ২৬ হাজার মানুষ। অসমের ৩৩টি জেলার মধ্যে ২৩টি জেলায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যের প্রায়৯ লক্ষ ২৬হাজার মানুষ। মারা গিয়েছেন কমপক্ষে ২০ জন। ব্রহ্মপুত্র নদীর জল ক্রমশ বাড়ছে। আগেই অতিবর্ষণের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

দ্রুত বাড়ছে ব্রহ্মপুত্র নদীর জল। ২০৭১টি গ্রাম জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। অতি ভারী বর্ষণের সাথে ব্রহ্মপুত্র নদীর জল আরও বাড়বে বলে পূর্বাভাস রয়েছে।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬৮,৮০৬ একর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। ১৯৩টি ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছে ২৭,৩০৮ জন মানুষ। রাজ্য এবং কেন্দ্রের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী একযোগে কাজ করছে অসমে। উদ্ধারকাজেও করোনার জন্যে সামািজক দূরত্ব বিধি মেনে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।
বন্যার জলে ভেসে গিয়ে গত সপ্তাহে দেমজি, উডালগুড়ি, গোয়াল পাড়া এবং ডিব্রুগড়ে ৫ জন মারা গিয়েছে। এছাড়াও একাধিক জেলায় কমপক্ষে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে বন্যার কারণে। ধেমাজি, লখিমপুর. জোরহাট, নলবাড়ি, বরাপেটা, কোকরাঝাড়, গোলাঘাট, তিনসুকিয়া ডিব্রুগড়, গোয়ালপাড়া, মাজুলি সহ একাধিক জায়গায় বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here