নিউজ ডেস্ক – ভারত ফুঁসে উঠতেই সীমান্ত থেকে ভয়ে পাততাড়ি গোটাচ্ছে নেপাল।
কালাপানি, লিপুলেখ আর লিম্পিয়াধুরা, এই তিনটি উত্তরাখন্ডের এলকাকে নেপাল নিজের বলে দাবি করতে শুরু করে। মানচিত্রে এলাকাগুলিকে নিজের আওতায় নিয়ে নিতে চায়। এরপরই কূটনৈতিক চালে মাত করে দিল্লি, যার জেরে কাঠমান্ডু ব্যাকফুটে যেতে বাধ্য হয়। আর এবার উত্তরাখন্ড থেকে সেনা পোস্টিং সরিয়ে নিল নেপাল।


নেপালেরর প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলির গদি টলে গিয়েছে। তাঁর নিজের দলের মধ্যেই তৈরি হয়েছে মতভেদ। ভারতের বিরুদ্ধাচারণের পরই নেপালের কমিউনিস্ট পার্টির একাংশ ওলিকে গদি ছাড়তে বলে সরব হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে উত্তরাখন্ডে যা হয়েছে, তা সাম্প্রতিক ভারত-নেপাল সম্পর্কে তাৎপর্যপূর্ণ।তবে, চিন ও নেপাল সীমান্ত এদিন খুলে যায়। দুই দেশের মধ্যে এদিন থেকে শুরু হয়েছে ব্যবসা। ফলে , সীমান্ত সংঘাতের আবহে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক লেনদেন ঘিরে একের পর এক দিক খতিয়ে দেখছে ভারত।


অন্যদিকে, নেপালের শসস্ত্রবাহিনী, যারা বিহার সীমান্তে দুই নিরপরাধ চাষিকে হত্যা করেছিল সীমান্ত সংঘাতের প্রতিশোধ নিতে, তারাই এবার উত্তরখান্ডে নিজেদের নতুন তৈরি করা আউটপোস্ট থেকে পিছু হটছে। নেপালের সেনা উত্তরাখন্ডের ধারচুলা ও পিথোরাগড় এলাকার পাশেই দুটি নতুন পোস্ট ১ মাস আগে তৈরি করে। আর দুটি নতুন পোস্ট থেকেই আপাতত তারা পিছু হঠে গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here