নিউজ ডেস্ক- এবার নিজেদের দেশে ভারতীয় চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করল নেপাল।যদিও দিব্যি চলছে চিন আর পাকিস্তানের চ্যানেল। নেপালের প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী ও নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির (এনসিপি) মুখপাত্র নারায়ণ কাজি শ্রেষ্ঠা ভারতীয় মিডিয়ায় তাদের দেশের সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন প্রোপাগান্ডা চালানোর অভিযোগ তুলেছিলেন। তার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এই পদক্ষেপ নিল নেপাল সরকার।বৃহস্পতিবার নেপালের কেবল অপারেটর মেগা ম্যাক্স টিভি’র ধ্রুব শর্মা এ এন আই কে জানিয়েছেন, সরকারে নির্দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য নেপালে ভারতীয় চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ থাকবে।


তবে একমাত্র দূরদর্শন চ্যানেল এবার নেপালে দেখা যাবে। এছাড়া কোনও টিভি চ্যানেল সেখানে চলবে না। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই নেপালে ভারতের সব চ্যানেল সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।  দিনকয়েক আগে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি’র প্রধান উপদেষ্টা বিষ্ণু রামাল বলেছিলেন, ভারতের সংবাদ মাধ্যমে নেপালের সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন ও আপত্তিজনক খবর দেখানো হচ্ছে।  নেপালের প্রধানমন্ত্রী আবার দাবি করেছিলেন, তাঁকে উৎখাত করার জন্য ভারতে গোপন বৈঠক হচ্ছে।


ইতিমধ্যে নেপালের পার্লামেন্টে সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনী সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়েছে। তাতে নতুন মানচিত্র অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।  ভারতের একাধিক ভূখণ্ড সেখানে নিজেদের বলে দাবি করেছে নেপাল। এই নিয়ে দুদেশের মধ্যে কূটনৈতিক উত্তেজনা রয়েছে।বিতর্কিত লিমপিয়াধুরা-কালাপানি-লিপুলেখ অঞ্চল নিয়ে ভারত ও নেপালের সম্পর্ক গত কয়েকদিনে অবনতি হয়েছে। এমনকী সীমান্তেও উত্তেজনা বাড়ছিল। এর মধ্যে নেপালের এমন সিদ্ধান্ত আগুনে ঘৃতাহুতি বলেই মনে করছেন অনেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here