নিউজ ডেস্ক – বৃদ্ধা শাশুড়িকে অ্যাসিড ছুড়ে মারলেন বউমা।ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষ থানার খুদকুড়ি গ্রামে। জানা গিয়েছে, ওই বৃদ্ধা শাশুড়ির নাম তিলত্তমা সিংহ,আর বউমার নাম রাণু হাজরা। বৃদ্ধার ছেলে অচিন্ত্য সিংহ ইতোমধ্যে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে স্ত্রী রাণু হাজরার বিরুদ্ধে। তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।


অ্যাসিড হামলায় গুরুতর অবস্থা বৃদ্ধার। দগ্ধ অবস্থায় তাঁকে খণ্ডঘোষ ব্লক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভরতি করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তিলত্তমা সিংহের স্বামী প্রয়াত হয়েছেন বহুদিন। তিলত্তমা দেবী খুদকুড়ি প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নার্সের কাজ করতেন। বেশ কিছুদিন আগে সেখান থেকে অবসর নেন তিনি। স্বাস্থ্যকেন্দ্রের হাউজিংয়েই ছেলে-বউমাকে নিয়ে থাকতেন তিনি।


তিলত্তমা দেবীর ছেলে অচিন্ত্য সিংহ এই ঘটনায় স্পষ্টতই স্ত্রীর দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। তাঁর অভিযোগ, বছর খানেক আগে খণ্ডঘোষের বোঁয়াইচণ্ডী গ্রামের বাসিন্দা রাণু হাজরার সঙ্গে বিয়ে হয় তাঁর। পেশায় পাত্রসায়ারের সরকরি অফিসে ক্লার্ক পদে রয়েছেন রাণু দেবী। কিন্তু স্ত্রীর প্রতি ক্ষোভ উগড়ে অচিন্ত্যর অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই বাড়িতে নানা ছোটখাটো বিষয়ে অশান্তি করতে শুরু করে রাণু। বাপের বাড়ি গেলে দু-তিন মাস সেখানেই কাটাত সে।


সম্প্রতি বাপের বাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়িতে ফেরে রাণু। শুক্রবার সকালে ফের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। তখন এগিয়ে এসে বউমা’কে শান্ত হতে বলেন শাশুড়ি তিলত্তমা দেবী। আর এতেই নাকি প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়ে ‘তুমিই যত নষ্টের গোড়া’ বলে শাশুড়িকে অ্যাসিড ছুড়ে মারেন রাণু হাজরা। ওই অ্যাসিড রাণুর নিজের ব্যাগেই ছিল বলে অভিযোগ। অ্যাসিড আক্রান্ত হয়ে তিলত্তমা দেবীর শরীরের বিভিন্ন জায়গা ঝলসে গিয়েছে। বৃদ্ধা শাশুড়ির প্রতি পুত্রবধূর এমন নিষ্ঠুরতায় হতবাক স্থানীয় বাসিন্দারা। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা বর্ধমান জুড়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here