নিউজ ডেস্ক- একুশের আগে লক্ষ্যমাত্রা স্থির ২০ লক্ষ মুসলিমের যোগদান বিজেপিতে। সংখ্যালঘু মোর্চার রাজ্য সভাপতি আলি হোসেন জানান, ইতিমধ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রায় সাড়ে ৪ লাখ মানুষ বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। আমরা ডিসেম্বরের মধ্যে ২০ লক্ষ সংখ্যালঘুকে অন্তর্ভুক্ত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছি। আগামী চার মাসে এই লক্ষ্য অর্জন করা যাবে।


জানা গিয়েছে, বিজেপি টার্গেট করেছে রাজ্যের ১২০ সংখ্যালঘু অধ্যুষিত বিধানসভা কেন্দ্রের প্রায় ১০ লক্ষ মুসলমান এবং বাকি ১৭৪টি বিধানসভা থেকে ১০ লক্ষ মুসলমানকে। সদস্যপদ প্রচারের সময় উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, মালদহ ও মুর্শিদাবাদের মতো সংখ্যালঘু অধ্যুষিত জেলাগুলিতে মনোনিবেশ করতে চাইছে বিজেপি।


আলি হোসেন বলেন, “সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অনেক বুদ্ধিজীবী এবং শিক্ষিত যুবক এখন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। কারণ তারা বুঝতে পেরেছেন যে বিজেপি ‘সকলের উন্নয়নে’ বিশ্বাস করে। বিরোধী দলগুলি নাগরিকত্ব সংশোধন আইন বা সিএএ নিয়ে মুসলমানদের বিভ্রান্ত করছে। এখন লোকেরা বুঝতে পেরেছে যে এর সঙ্গে নাগরিকত্বের কোনও যোগসূত্র নেই।মুসলিমরা রাজ্যের মোট ভোটারের ২৮-৩০ শতাংশ এবং রাজ্যের ২৯৪টি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে ১২০টিরও বেশি আসনে মুসলিমরা নির্ধারক শক্তি। আলি হোসেনের মতে, বিজেপি-বিরোধী দলগুলি বেশ কয়েক বছর ধরে বিজেপিকে সাম্প্রদায়িক দল আখ্যা দিয়ে আসছে। কিন্তু মানুষ এখন বুঝতে পারছেন কারা আসলে সাম্প্রদায়িক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here