নিউজ ডেস্ক-জেএনইউ-র নাম বদলে স্বামী বিবেকানন্দের নামে নামকরণের দাবি বিজেপির। গত সপ্তাহেই তুমুল ছাত্র বিক্ষোভের মাঝেই দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তি উন্মোচন করতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। এবার তার রেশ ধরেই স্বামীজীর নামেই দেশের এই প্রথমসারির বিশ্ববিদ্যালয়ের পুনরায় নামকরনের দাবি তুললেন বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক এবং কর্ণাটকের প্রাক্তন মন্ত্রী সি টি রবি।যা নিয়ে ফের তীব্র জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদকের জেএনইউ-র নতুন নামকরণের দাবিতে শোরগোল পড়েছে রাজনৈতিক মহলে। এদিকে এদিন টুইট করে তার নতুন নামকরণের দাবির পিছনে একাধিক যুক্তিও খাড়া করেন তিনি। নাম বদলের দাবি ও বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বিপির জুড়ি মেলা ভার। এর আগেও দেশের একাধিক খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান, জায়গার নাম বদলেছে বিজেপির আমলেই। যেমন বিখ্যাত মোঘলসরাই স্টেশনের নাম বদলে এখন নতুন নাম হয়েছে পণ্ডিত দিলদয়াল উপাধ্যায় স্টেশন। এমতাবস্থায় দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তথা কংগ্রেসের বরিষ্ঠ রাজনীতিবিদ জওহরলাল নেহেরুর নামে নামাঙ্কিত দিল্লির এই কেন্দ্রীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম বদলের দাবি আগামীতে কতটা জল পায় এখন সেটাই দেখার।


জন্মলগ্ন থেকেই দেশের এই এলিট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে রয়েছে বামপন্থীদের দাপট। এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকেই জন্ম কানাইয়া কুমার, উমর খালিদের মতো একাধিক বামপন্থী ছাত্রনেতার। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য সদ্য উন্মোচিত স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তিটির নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল ২০১৮ সালে। এদিকে পূর্ণাঙ্গ রূপ পাওয়ার আগেই গত বছরই বিবেকানন্দের নব নির্মিত মূর্তিটির উপর ভাঙচূর চালানো হয় বলে জানা যায়। এমনকী তার পাশে ‘আপত্তিকর’ বেশ কিছু মন্তব্যও লেখা হয়। অভিযোগের তীর ওঠে ক্যাম্পাসের বেশ কিছু অতিবাম ছাত্র সংগঠনের দিকে। যদিও ক্যাম্পাসের বামপন্থী ভাবমূর্তিকে কালিমালিপ্ত করতেই এবিভিপি চক্রান্ত করে এই কাজ করেছে বলে পাল্টা অভিযোগ তোলে বামেরা। যা নিয়ে উত্তাল হয় রাজ্য রাজনীতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here