মালদা- প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়িতে শতাধিক বোমা উদ্ধার। ২০-২৫ টি ড্রামে চলছিল বোমা মজুতের কাজ। গতকাল কাছের সর্ষে ক্ষেতে বিস্ফোরণ ঘটে। গুরুতর আহত হন এক যুবতী। তদন্তে নেমে পুলিশ অসংখ্য ড্রামে বোমা মজুত করে রাখার সন্ধান পায়। এই ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা রয়েছে মালদার চাঁচলের জালালপুর এলাকায়। গা ঢাকা দিয়েছেন জালালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন সদস্য, তৃণমূল নেতা মহম্মদ তফিজুদ্দিন। পুলিশ তাঁকে ধরতে তল্লাশি চালাচ্ছে। পাশাপাশি গ্রাম জুড়ে তল্লাশিতে নেমেছে পুলিশ। টহল দিচ্ছে র‍্যাফ। পুলিশের অনুমান তফিজুদ্দিন আরও বেশ কিছু জায়গায় বোমা মজুত করে রেখেছে।


পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানান, আজ বিকেলে অনেকগুলি ড্রামে শতাধিক বোমা উদ্ধার হয়েছে প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য তফিজুদ্দিনের বাড়ি থেকে। গতকালও তাঁর বাড়ি ও জমি থেকে বোমা উদ্ধার হয়। বোমা মজুত করা ছিল।গতকাল তাঁর বাড়ির কাছেইসর্ষে ক্ষেতে সর্ষে শাক তুলতে গিয়ে বিস্ফোরণের গুরুতর জখম হন বেরাফুল খাতুন নামে বছর ২২-এর এক যুবতী। এরপরেই ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ বাহিনী। সর্ষে ক্ষেতেই উদ্ধার হয় প্রচুর বোমা।পরে পাশের বাঁশ ঝার ও তফিজুদ্দিনের শৌচাগার থেকেও ১০ টি ড্রামে ৫০ এর বেশি বোমা উদ্ধার হয়। আজ আবার নতুন করে আরও বোমা উদ্ধার হয়েছে। পুলিশ এখনো তল্লাশি চালাচ্ছে।
এদিকে এলাকায় রয়েছে তীব্র উত্তেজনা। পুলিশ, র‍্যাফ টহল দিচ্ছে গোটা এলাকা জুড়ে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে এলাকায় ছুটে গেছেন চাঁচলের এসডিপিও শুভেন্দু মন্ডল। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ , ভোটের আগে সন্ত্রাসের জন্যেই বোমা মজুত করা হচ্ছিল। সব ভোটের আগেই এলাকায় বোমাবাজি সন্ত্রাস নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here